জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টারঃ
সংবাদ প্রকাশের জের ধরে সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে সংবাদকর্মীকে হেয় ও হুমকি প্রদানের প্রতিবাদে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের সদ্য নির্বাচিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (২৯ মে) বেলা ১২ টায় সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সামনে এর আয়োজন করা হয়। সৈয়দপুর সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই কর্মসূচীতে সৈয়দপুরে কর্মরত সকল সংবাদ কর্মী ও সাংবাদিক সংগঠনের সদস্যরা অংশ গ্রহণ করেন। 

আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক দৈনিক সকালের সময় প্রতিনিধি মোতালেব হোসেন হক’র সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সদস্য সচিব দৈনিক আমার সংবাদ প্রতিনিধি নুর মোহাম্মদ ওয়ালীউর রহমান রতন, ডেইলী অবজারভার প্রতিনিধি সাব্বির আহমেদ সাবের, দৈনিক নয়াদিগন্ত প্রতিনিধি জাকির হোসেন, দৈনিক ভোরের পাতা প্রতিনিধি জয়নাল আবেদীন হিরো, দৈনিক সমকাল নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি আমিরুল হক, নাগরিক টিভির জেলা প্রতিনিধি সাদিকুল ইসলাম, সাংবাদিক জোটের নীলফামারী শাখা সভাপতি মাসুদুর রহমান লেলিন প্রমুখ ৷
বক্তারা বলেন, সংবাদ পত্রে প্রকাশিত কোন সংবাদ যদি কারো বিপক্ষে যায় বা কেউ ক্ষুব্ধ হন তাহলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট পত্রিকায় নিয়মতান্ত্রিক ভাবে প্রতিবাদ জানাতে পারেন অথবা সংশ্লিষ্ট সংবাদ কর্মীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিতে পারেন। কিন্তু নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান তা না করে সন্ত্রাসী কায়দায় দলবলসহ এসে প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তায় প্রকাশ্যে হেনস্তা করেছেন। এক পর্যায়ে উগ্র আচরণ করে বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হন এবং সর্বশেষ ‘বি কেয়ারফুল’ বলে হুমকি দেন। 

একজন জনপ্রতিনিধির কাছে এমন আচরণ কোনভাবেই মেনে নেয়ার মত নয়। অথচ তাঁর বাবা মরহুম আমজাদ হোসেন সরকার দীর্ঘদিন জনপ্রতিনিধি হিসেবে সৈয়দপুরে নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন। তিনি সব সময় সাংবাদিকদের সাথে সৌহার্দ্য পূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে চলেছেন। একারণে তাঁর প্রতি সর্বস্তরের মানুষের সমর্থন ছিল। সেই ধারাবাহিকতায় তাঁর একমাত্র সন্তান রিয়াদ আরফান সরকার রানার প্রতি সহানুভূতি দেখিয়ে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। সেই বিষয়টিকে হাইলাইট করে সংবাদ প্রকাশ করেছে সমকাল। এতে কোন প্রকার নেতিবাচক কিছু উপস্থাপন করা হয়নি। তারপরও এটাকে কেন্দ্র করে একটি চক্র উস্কানী দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পায়তারা করছেন। 

এরই অংশ হিসেবে সাংবাদিক আমিরুল হকের সাথে অশোভন ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটানো হয়েছে। যা সৈয়দপুরের জন্য কখনই হিতকর নয়। এহেন অগ্রহণযোগ্য কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান। অনতিবিলম্বে উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াদ আরফান সরকার রানাকে ক্ষমা চেয়ে দৈনিক সমকালের সাংবাদিক আমিরুল হক এর সাথে সমাধান করে নেয়ার আহ্বান জানান। নয়তো আরও জোড়ালো কর্মসূচি গ্রহণ করাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা প্রদান করেন।