শেখ আবদুল্লাহ আনোয়ারা(চট্টগ্রাম)প্রতিনিধি

‘জীবনের শেষ ভোট দিতে এসেছি’বয়স! বয়স তো টালোদ্ধা অইয়্যি, যেবুগর অত্ত হইয়্যি, জীবনর শেষ ভোট দিতামাইস্সি, বিয়ারামে ধরি গেইয়ি যে হঅন সমত যেয়ুমগই। নাতিয়ে রিক্সাত গরি লইয়াইস্সে, রিক্সাত গরি যেয়ুমগুই। (বয়স! বয়স তো অনেক হয়েছে, যাওয়ার সময় হয়ে গেছে। জীবনের শেষ ভোট দিতে আসলাম, অসুস্থ হয়ে গেছি যেকোনো সময় চলে যাবো)

বুধবার (২৯ মে) বেলা ১২টার দিকে আনোয়ারা উপজেলার বারশত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়ে ৯০ বছর বয়সী মনু খাতুন ভাঙা ভাঙা কণ্ঠে এভাবেই অনুভূতি প্রকাশ করেন।

শেষ ভোট মনে করে এসেছেন আমেনা

বৈরাগ মধ্যবন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন আশি বছর পেরিয়ে যাওয়া আমেনা খাতুন।

জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অনেক বছর ভোটকেন্দ্রে আসিনি। শেষ ভোট মনে করে এবার ভোট দিতে শখ জেগেছিলো। তিনটা সিল মেরেছি আমি। আমার শেষ ইচ্ছে পূরণ হলো।’

এদিকে উপজেলার বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা যায়, প্রতিটা কেন্দ্রে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোটাররা ভোট প্রদান করছেন। কয়েকটা কেন্দ্রে ছোটখাটো ঝামেলা হলেও দায়িত্বরত অফিসারদের হস্তক্ষেপে ভোটগ্রহণ হয়।

এর আগে সকাল আটটা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত আনোয়ারা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে দুই বারের উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরীকে ২২হাজার ২৩ ভোট ব্যবধানে পরাজিত করে জয়ী হয়েছেন আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আনারস প্রতীকের প্রার্থী কাজী মুজাম্মেল হক।